আতঙ্কমুক্ত নীলফামারী

কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পেলেন ৩৪ জন

0
747

চীন ফেরত ৩৫ জনকে তাদের বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন নীলফামারির সিভিল সার্জন রণজিৎ কুমার বর্মণ। এদের মধ্য থেকে ৩৪ জনকে ১৪ দিন পর কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া হয়েছে। বাকী একজন কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পাবেন আগামীকাল শনিবার।

শুক্রবার কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পাওয়া চীন থেকে ফিরেছিলেন। এরা সবাই নীলফামারীর ৬ উপজেলার বাসিন্দা। ৩৫ জনের মধ্যে সদর ও ডোমার উপজেলার ৮ জন করে ১৬ জন, জলঢাকা ও ডিমলা উপজেলার ৬ জন করে ১২ জন, সৈয়দপুর উপজেলার ৪ জন ও কিশোরগঞ্জ উপজেলার ৩ জন রয়েছেন।

রণজিৎ কুমার বর্মণ জানান, জেলায় মোট ৩৫ জনকে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। ১৪ দিন পর তাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ না থাকায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আরেকজন ১ মার্চ থেকে কোয়ারেন্টাইনে আছেন। শনিবার তার কোয়ারেন্টাইনের ১৪ দিন পূর্ণ হবে। এরপর তার দেহে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া না গেলে তাকেও ছেড়ে দেয়া হবে।

সিভিল সার্জন জানান, স্বাস্থ্যকর্মীরা নিয়মিত কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের খোঁজ নিয়েছেন। আমরাও তাদের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা সম্পর্কে বলেছি।

রণজিৎ কুমার জানান, তারা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত নিজের বাড়ির একটি কক্ষে ছিলেন। ওই সময়ের মধ্যে পরিবারের সদস্যরা তাদের সংস্পর্শে আসেননি।

সিভিল সার্জন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের পরিবারের কোন সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার প্রয়োজন হয়নি।

উল্লেখ্য, চীনের উহান থেকে করোনা ভাইরাসের সূত্রপাত। এ পর্যন্ত ৪ হাজারেরও বেশি মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বাংলাদেশসহ ১১৪টি দেশে এক লাখেরও বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।