লাখো মানুষের জমায়েত স্থগিত

হ্যান্ডশেক না করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

0
786
ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ায় মুজিব জন্ম শতবার্ষিকী ছোট আকারে পালিত হবে। তিনি জানান, মুজিব জন্ম শতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে লাখো মানুষের সমবেত হওয়ার কথা ছিল। সে জমায়েত বন্ধ করা হয়েছে। অনুষ্ঠান হবে ছোট আকারে। তবে অন্যান্য কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। শেখ হাসিনা বলেন, এটি বছরব্যাপি কর্মসূচি। গণজমায়েত হবে এমন অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, রোববার সভা হয়েছে। সভায় লোক সমাগম হবে এমন অনুষ্ঠান শিথিল করা হয়েছে। আমাদের কাছে জনগণের কল্যাণ বড়।

জনগণের নিরাপত্তা সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, এমন অনুষ্ঠান করা হবে যাতে লোক সমাগম কম হয়। মানুষের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যের বিষয়ে নজর দেয়া হচ্ছে। ঢাকায় তিনটি হাসপাতাল প্রস্তুত করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জনগণের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, কারও মধ্যে এতটুকু লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। সবাইকে স্বাস্থ্য সচেতন থাকতে হবে। ঘর পরিষ্কার রাখতে হবে। বাড়ির পাশের রাস্তাও পরিষ্কার রাখতে হবে। করোনা ভাইরাস বেশি দিন থাকবে না। এটি বাতাসে ওড়ে না। তবে এটি ছোঁয়াচে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রস্তুতি সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সব হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে। টেলিভিশনে জনসচেতনতা তৈরিতে নিয়মিত প্রচারণা চালানো হচ্ছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশ প্রস্তুত রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতালি ফেরতদের আত্মীয়দেরও পরীক্ষা করা হয়েছে। যারা আক্রান্ত হয়েছে তাদের কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। তারা কোথায় কোথায় গেছে সেই খবর নিয়ে তাদেরও (যারা তাদের সংস্পর্শে এসেছে) পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের আত্মীয় স্বজনদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এসময় প্রধানমন্ত্রী সবার উদ্দেশে বলেন, করোনা ভাইরাস ছোঁয়াচে। তাই এখন থেকে হ্যান্ডশেক করা বন্ধ। সবাইকে সচেতন হতে হবে।